গুরুকুলে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশততম জন্মবার্ষিকী পালিত

আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গুরুকুলে উপমহাদেশের অন্যতম সমাজ সংস্কারক ও বাংলা গদ্যের জনক ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশততম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে।

প্রতিষ্ঠানের বাংলা বিভাগের শিক্ষক লাবণী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও ঐশী রহমানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডীন ড. সরওয়ার মূর্শেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক শাহীন সরকার, গুরুকুলের সহকারী পরিচালক রাকিবুজ্জামান তানিম।

শিক্ষক লাবণী বিশ্বাসের সভাপতি

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. সরওয়ার মূর্শেদ বলেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর একাধারে সমাজ সংস্কারক, বিদ্যানুরাগী, নারী কল্যাণকামী ও মানবতাবাদী মানুষ ছিলেন। তার মত সমাজহিতৈষী মানুষ আমাদের সামাজিক প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত প্রয়োজন।

উপমহাদেশের প্রথম নারীদদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তিনি প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি বিধবা বিবাহের প্রচলন করেন। অদম্য ইচ্ছা শক্তি ও সাহসের কারণে চরম দারিদ্রতাকে জয় করে তিনি সমাজের কল্যাণে নিজেকে নিবেদিত করেছিলেন।বৃহস্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া শহরে অবস্থিত গুরুকুলের নিজস্ব অডিটোরিয়ামে আলোচনাটি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কলেজের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে গুরুকুল কালচারাল ক্লাবের আয়োজনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।