চাকরির ইন্টার্ভিউ এর প্রস্তুতি সিরিজের প্রচার শুরু হয়েছে । গুরুকুল বাংলাদেশ

শিক্ষা জীবন শেষ করার পরে, আমরা যে জিনিসটি সবাই মরিয়া হয়ে উঠি, তা হল প্রত্যাশা অনুযায়ী একটি চাকরি বা কাজ। আমাদের মনে হতে থাকে চাকরিটা আসলে গতকাল দরকার ছিল। আমাদের মনে হয় আমার হাতে এতদিন ধরে লেখাপড়া করার স্বীকৃতি স্বরূপ একটা সার্টিফিকেট আছে। তাই চাকরিটা পেতে দেরি হবে কেন। আমাদের মাথায় থাকে আমাদের সার্টিফিকেটটি আমাদের চূড়ান্ত যোগ্যতার স্বীকৃতি। আর কোন যোগ্যতার স্বীকৃতি বা পরিচয় দেয়ার প্রয়োজন নেই। এই যুগে এস মানতে কষ্ট হলেও একটি সত্য মেনে নিতে হবে, তা হল, লেখাপড়ার সার্টিফিকেট অর্থই Employability বা “নিয়োগ উপযুক্ত” নয়। সার্টিফিকেট এর পাশাপাশি সার্টিফিকেট সংশ্লিষ্ট হার্ড স্কীল, কমন সফট স্কীল, বিশেষ চাকরিটির জন্য প্রয়োজনীয় সফট স্কীল সহ নানাবিধ বিষয় আজ Employability র পূর্ব শর্ত। এই সবকিছু ছাপিয়ে আর একটি দক্ষতা অত্যন্ত জরুরী, যা হল একটি ভাল কাজের সাক্ষাতকার দেয়া, বা নিজেকে সম্পূর্ণ ভাবে চাকুরিদাতার শর্ত অনুযায়ী মেলে ধরার যোগ্যতা। মনে রাখা দরকার, বর্ণিত সব যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও, শুধুমাত্র চাকরির ইন্টার্ভিউ এর সময়, সঠিক উপস্থাপন, সঠিক প্রশ্নের উত্তর, সঠিক ভাবে যোগাযোগ স্থাপন না করতে পারলে অনেক সুযোগ হাতের বাইরে চলে যেতে পারে। অন্য ভাবে বললে, আজকের এই প্রতিযোগিতামূলক চাকুরীর বাজারে, চাকরি নিশ্চিত করার অন্যতম পূর্বশর্ত হচ্ছে – একটি সফল সাক্ষাতকার। আপনি যতই স্মার্ট আর যোগ্য হন না কেন, মনে রাখাতে হবে চাকরির সাক্ষাৎকার একটি ভিন্ন ধরণের প্রস্তুতি। চাকরির ইন্টার্ভিউতে দিতে যাবার জন্য, আপনার নিজেকে, সকল যোগ্যতার পাশাপাশি, আলাদা করে প্রস্তুত করতে হবে।

চাকরির সাক্ষাৎকার এটি এমন একটি জায়গা, যেই জায়গাতে ভুল করলে, পরবর্তী সুযোগ পাওয়া খুবই কঠিন। তাই যদি আপনার মনে হয়, চাকরির সাক্ষাৎকারের জন্য, আলাদা করে প্রস্তুতি নেয়ার কী আছে, তাহলে আপনি বড় ভুল করছেন। মনে রাখা দরকার, অন্য সব হার্ড স্কীল বা সফট স্কীল যেভাবে প্রস্তুতি সহ নিয়মিত পরিশ্রম করে অর্জন করতে হয়, ঠিক একইভাবে, সফল চাকরির সাক্ষাৎকার দেবার জন্যে, আলাদা করে প্রস্তুতি নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করতে হয়। বিভিন্ন কৌশল ও বুদ্ধিমত্তার প্রয়োগ শিখতে হয়। সেই প্রস্তুতি না নিলে, আজকের চাকরির বাজারে, নিজের আলাদা যোগ্যতার প্রমাণ দেয়া কঠিন। আর সেটা না পারলে প্রতিযোগীদের থেকে এগিয়ে প্রত্যাশিত চাকরিটিও পাওয়া কঠিন। চাকরির ইন্টার্ভিউ বিষয়টি দেখতে যতটা সহজ মনে হয় বা বিষয়টি শুনতে যতটা সহজ, বাস্তবে সেই বিষয়টি সফলতার সাথে শেষ করা ততটাই কঠিন। সুতরাং বুঝতে নিশ্চয় অসুবিধা হচ্ছে না যে এই প্রস্তুতি কতটা জরুরী। গুরুত্ব যদি বুঝে থাকেন তবে শুরু করুন চাকরির সাক্ষাৎকার এ বসার জন্য শারীরিক ও মানসিক প্রস্তুতি। আপনার সফল সাক্ষাৎকার নিশ্চিত করতে সহায়ক হিসেবে গুরুকুল অনলাইন লার্নিং নেটওয়ার্ক [GOLN] রয়েছে আপনার সাথে। আমাদের এই সিরিজে চাকুরীর সাক্ষাৎকার বিষয়ে প্রশ্ন করেছেন গুরুকুলের প্রশিক্ষক শিহাব হাসান নিয়ন। উত্তর দিয়েছেন গুরুকুল প্রমুখ সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর।

এই সাক্ষাৎকার সিরিজ দেখে আপনার যদি আরও কোন প্রশ্ন মনে আসে, তবে সেটি আমাদের ভিডিওগুলোর নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। আমরা সময় ও সুযোগ মতো সেই উত্তর দেবার চেষ্টা করবো।