জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (এনটিভিকিউএফ) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা

জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক

Table of Contents

১.০ আবেদন পত্র গ্রহণ ও বাছাই প্রক্রিয়া:

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নির্ধারিত আবেদন পত্র ফরমে উলিখিত বিষয়াদি ও সংযুক্তিসহ পুর্ণাঙ্গ তথ্যাবলী সম্বলিত আবেদনপত্রসমূহ বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত তারিখের মধ্যে বিতরণ ও বাছাই প্রক্রিয়া সম্পনড়ব করতে হবে। বাছাই কালে প্রকৃত সনদপত্র, বয়স, নির্ভূল তথ্য ইত্যাদি যথাযথ ভাবে নিরীক্ষণ করা অত্যাবশক।

১.১ বিতরণকৃত আবেদন পত্র ফরমের বিক্রয়ের হিসাব ও রশিদ যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে হবে।

১.২ বাছাইকালে বাতিল ও গ্রহণযোগ্য আবেদনপত্রসমূহ পৃথকীকরণসহ একটি তালিকা প্রণয়ন করতে হবে।

১.৩ ভর্তি পরীক্ষার জন্য যোগ্য প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশনাসহ নির্ধারিত সূচি মোতাবেক ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠানের পূর্বেই তালিকা প্রকাশ করতে হবে।

১.৪ বাছাইকৃত বাতিল ফরমসমূহে ত্রুটিসমূহ সনাক্ত পূর্বক কমিটির মন্তব্য আবেদনপত্রের উল্টা পৃষ্ঠায় লিপিবদ্ধসহ স্বাক্ষরিত হতে হবে।

১.৫ প্রার্থীকে প্রতিষ্ঠানের বিভিনড়ব ট্রেড ও একাডেমিক নীতিমালা সস্পর্কে অবহিতকরণপূর্বক অনুপ্রাণিত করা আবশ্যক (প্রস্পেকটাস, লিফলেট, সরজমিনে ট্রেড পরিদর্শন ইত্যাদি)।

১.৬ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীনে যে কোন কোর্সে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী কোর্স সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত এই কোর্সে ভর্তি হতে পারবে না। ভূল তথ্য দিয়ে কোন শিক্ষার্থী ভর্তি হলে তার ভর্তি বাতিল হবে।

[ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক ]

২.০ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী ভর্তি কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনে প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য পরীক্ষার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বোর্ড অনুমোদিত প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণার্থী বাছাই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সুষ্ঠুভাবে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠান প্রধানকে আহবায়ক করে ৩ হতে ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে ভর্তি সংক্রান্ত কার্যক্রম সম্পাদন করতে হবে। প্রার্থী বাছাইয়ের জন্য কমিটি সততা, সচ্ছতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করবে।

কমিটির কাঠামো :

১. প্রতিষ্ঠান প্রধান আহবায়ক

২. সংশিষ্ট শিল্প কারখানার প্রতিনিধি ১ জন সদস্য

৩. সিবিটি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষক (১/২) সদস্য

৪. বোর্ড মনোনীত প্রতিনিধি ১ জন সদস্য

২.১ প্রতিষ্ঠান প্রধান গোপনীয়ভাবে ভর্তি পরীক্ষার প্রশড়বপত্র ক্সতরি, মডারেশন ও মূদ্রণের ব্যবস্থা করবে।

২.২ বিজ্ঞপ্তিতে উলিখিত যোগ্যতা সম্পনড়ব প্রার্থীদের বাছাইয়ের জন্য লিখিত পরীক্ষার প্রশড়বপত্র ভাষাজ্ঞান ও গণিতে সক্ষমতা যাচাইয়ের উপযোগী করে প্রণয়ন করতে হবে।

২.৩ ভর্তি পরীক্ষার প্রশড়বপত্রের নম্বর বণ্টনঃ লিখিত-৪০(বাংলা-১০, ইংরেজি-১০, গণিত-১০, সাধারণ জ্ঞান-১০), কায়িক প্রবণতা টেস্ট-৪০, মৌখিক পরীক্ষা-২০।

২.৪ বোর্ড কর্তৃক পরীক্ষা অনুষ্ঠানের নির্ধারিত তারিখে লিখিত, মৌখিক পরীক্ষা ও কায়িক প্রবনতা টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে।

[ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক ]

৩.০ লিখিত ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত :

কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক নির্ধারিত সময়সূচি অনুসারে লিখিত পরীক্ষার নিয়মানুসারে স্ব-স্ব কেন্দ্রের নিজস্ব আসন ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে। লিখিত পরীক্ষা গ্রহণের জন্য স্ব-স্ব কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নির্দেশানুসারে পরিদর্শক নিয়োগ, নিরাপত্তা বিধান, প্রয়োজনে বহিরাগত পরিদর্শক নিয়োগ ইত্যাদির ব্যবস্থাপনা করতে হবে। এ প্রেক্ষিতে যে সকল বিষয়াদি অত্যন্ত গুরুত্বসহ বিবেচনা করতে হবে ঃ

৩.১ আসন সংখ্যা অনুসারে পরিদর্শী, প্রধান পরিদর্শী, হল তত্ত¡াবধায়ক, সাহায্যকারী নিয়োগের ব্যবস্থা করা।

৩.২ সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণের জন্য নিরাপত্তা বিধান।

৩.৩ পরীক্ষা অনুষ্ঠানের জন্য নির্ধারিত সময় সীমার প্রতি লক্ষ্য রাখা।

৩.৪ পরীক্ষা শেষে সকল উত্তরপত্রসমূহের ক্রমানুসারে সাজিয়ে কোড নং প্রদান।

৩.৫ পরীক্ষা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নিকট কোড নং এর কাটিং সংরক্ষণসহ গোপনীয়তা রক্ষা করা।

৩.৬ সকল প্রশিক্ষককে একত্রিত করে পরীক্ষা অনুষ্ঠানের দিবসেই উত্তরপত্র পরীক্ষণ, নিরীক্ষার কাজ সমাপ্ত করা।

[ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক ]

৪. ফলাফল প্রকাশ :

৪.১ লিখিত, মৌখিক পরীক্ষা ও কায়িক প্রবনতা টেস্টে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে টেবুলেশন ক্সতরি করতে হবে।

৪.২ সর্বমোট প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে চূড়ান্তভাবে প্রশিক্ষণার্থী মনোনয়ন করতে হবে এবং আসন সংখ্যার অর্ধেক অপেক্ষমান তালিকাসহ মেধাক্রম অনুসারে ফলাফল প্রকাশ করতে হবে।

৫.০ কায়িক প্রবণতা টেস্ট :

৫.১ প্রতিষ্ঠান প্রধান প্রতিষ্ঠানের প্রচলিত ট্রেডের সংখ্যানুসারে একটি উপ-কমিটি গঠন করবেন।

৫.২ বাছাইকৃত যোগ্য প্রার্থীদেরকেই লিখিত ও কায়িক প্রবনতা টেষ্টে অংশগ্রহণ করতে হবে।

৫.৩ সর্বমোট প্রার্থীর সংখ্যা অনুসারে সংশিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ট্রেড ওয়ার্কশপের সুবিধা অনুযায়ী প্রার্থীদেরকে সমভাবে ট্রেড ভিত্তিক উপ-কমিটির নিকট প্রেরণ করতে হবে।

৫.৪ প্রতিষ্ঠানের বাস্তব সুবিধাদির উপর ভিত্তি করে প্রস্তাবিত কায়িক প্রবণতা টেষ্ট যথা সম্ভব সীমিত ও নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পনড়ব করার জন্য পর্যবেক্ষণ ভিত্তিক নম্বরবণ্টন করতে হবে।

৫.৫ অত্যন্ত ক্সধর্য্য ও কৌশলগত সাবধানতার মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করে বণ্টনকৃত নম্বর সংরক্ষণ করতে হবে।

৫.৬ সাধারণভাবে ০৫:১ হইতে ১০:১ অনুপাতে প্রার্থী পর্যবেক্ষক নিয়োগ করতে হবে। প্রশিক্ষক স্বল্পতার কারণে প্রয়োজনে এই সংখ্যা পরিবর্তন করা যেতে পারে।

৫.৭ প্রস্তাবিত বিষয়াদির টেষ্ট গ্রহণের সময় স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের বাস্তব সুবিধাদির বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে [ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামো ]।

৫.৮ কায়িক প্রবণতা টেষ্টের পর্যবেক্ষণ ও নম্বর বণ্টন সংক্রান্ত পদ্ধতিগত নমুনা রূপরেখা ঃ

[ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক ]

জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামো
জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামো

 

৬.০ প্রার্থীদের ভর্তির আবেদন ফি

আবেদন ফি বাবদ ১০০/- (একশত) টাকা জমা দিতে হবে। উক্ত অর্থের মধ্যে ৮০/- (আশি) টাকা প্রতিষ্ঠানের ভর্তি সংক্রান্ত কার্যক্রমের ব্যয় হিসেবে রেখে দিবে এবং ২০/- (বিশ) টাকা ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশসহ বিবিধ খরচ মিটানোর জন্য বোর্ডে প্রেরণ করতে হবে।

৭.০ প্রশিক্ষণার্থী ভর্তির জন্য প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির অন্যান্য শর্তাবলি :

প্রশিক্ষণার্থী ভর্তির জন্য প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির অন্যান্য  শর্তাবলি প্রযোজ্য হবে।

৮.০ এই নীতিমালার কোন ধারা/ধাবাসমূহের ব্যাখ্যা প্রদান :

এই নীতিমালার কোন ধারা/ধাবাসমূহের ব্যাখ্যা প্রদানের অধিকার বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড কর্তৃক সংরক্ষিত থাকবে এবং বোর্ডের ব্যাখ্যাই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে [ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামো ]।

৯.০ এ নীতিমিালায় অনুলিখিত কোন বিষয়ে ব্যাখ্যা প্রদানের ক্ষমতা বোর্ডের নিকট সংরক্ষিত থাকবে।

[ জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামোর (NTVQF) আওতায় প্রশিক্ষণার্থী বাছাইয়ের জন্য লিখিত ও কায়িক প্রবণতা পরীক্ষা [ Written and physical aptitude test for selection of trainees under national technical and vocational qualification framework, NTVQF ] বিষয়ক ]

জাতীয় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক যোগ্যতা কাঠামো বিষয়ে গুরুকুলে : যোগাযোগ

error: Content is protected !!